ডায়াবেটিস রোগীরা ২ ধরনের। ডাক্তার জানান ১ বছর পর্যন্ত উপশম পাবে।

ডায়াবেটিস রোগীরা ২ ধরনের। ডাক্তার জানান ১ বছর পর্যন্ত উপশম পাবে।

প্রতি বছর ১৪ই নভেম্বর মানুষের মধ্যে ডায়াবেটিস সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালিত হয়।

বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসে বুধবার কলকাতা শহরের ডাক্তাররা জানালেন টাইপ ২ ডায়াবেটিস রোগীরা মেডিকেল নিউট্রিশন থেরাপি অক্ষরে অক্ষরে পালন করলে এক বছর পর্যন্ত রোগের কবল থেকে নিজেদের দূরে রাখতে পারবে।

ক্রনিক রোগের ক্ষেত্রে রেমিসন বা উপশম বলতে ডাক্তারি ভাষায় রোগের লক্ষণগুলোর হাত থেকে মুক্তিকেই বোঝায়।

ডায়াবেটলজিস্ট ডক্টর কোভিল পিটিআই-কে জানিয়েছেন প্রায় ৫০% টাইপ ২ ডায়াবেটিস রোগী ইনটেনসিভ ইনসুলিন থেরাপি চার সপ্তাহ করানোর পর এক বছর পর্যন্ত সুস্থ থেকেছে।

এছাড়াও, স্বল্প ক্যালরি সমৃদ্ধ খাবার প্রায় চার মাস নিয়মিত গ্রহণ করলে এবং  তারপর প্রায় দুই-তিন মাস অন্যান্য খাবারও পরিমিত গ্রহণ করলে ও নিজের দৈহিক ওজন ১০-১৫% কমিয়ে ফেললে রোগের উপশম হতে সুবিধা হয় বলে তিনি জানিয়েছেন।

তবে কোভিল আরও জানিয়েছেন, হেলদি লাইফস্টাইল মেনে না চললে উপশম পাওয়া যায় না।

যে সকল মানুষের ওবেসিটিও আছে, তারা বেরিয়াট্রিক সার্জারি করেও টাইপ ২ডায়াবেটিস থেকে উপশম পেতে পারেন।

আমেরিকান ডায়াবেটিস অ্যাসোসিয়েশন (এডিএ) এবং ইউরোপিয়ান অ্যাসোসিয়েশন ফোর দ্য স্টাডি অব ডায়াবেটিস (ইএএসডি) এর একটা সাম্প্রতিক গবেষণা হয়েছিল হাইপারগ্লাইসেমিয়া ম্যানেজমেন্ট নিয়ে। সেখানে বলা হয়েছে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের জন্য লাইফস্টাইল পরিবর্তন করা অত্যন্ত প্রয়োজন।

গর্ভাবস্থায় অতিরিক্ত চাপ শিশুর প্রাপ্তবয়সে তৈরি করতে পারে জটিল সমস্যা

দীর্ঘদিন রক্তশর্করার পরিমাণ বেশি থাকলে ডায়াবেটিস মেলিটাস বা মধুমেহ রোগ হয় যার ফলে মেটাবলিজমে সমস্যা সৃষ্টি হয়।

টাইপি ১ ডায়াবেটিসের সম্পূর্ণ উপশম সম্ভব কি না জিজ্ঞাসা করা হলে পেডিয়াট্রিক এন্ডোক্রিনোলজিস্ট ডাক্তার সুব্রত দে বলেন এখনও পর্যন্ত ঠিকভাবে জানা না গেলেও এই নিয়ে প্রচুর গবেষণা চলছে।

টাইপি ১ ডায়াবেটিসের একমাত্রচিকিৎস হল ইনসুলিন এবং তার পাশাপাশি লাইফস্টাইল পরিবর্তন করে সুঅভ্যাস গড়ে তোলা ও নিয়মিত শরীরচর্চা করা।

ডাক্তার অয়ন রায় (ডায়াবেটিস অ্যান্ড জয়েন্ট) গ্যাসট্রোএনট্রোলজিস্ট জানান ডায়াবেটিস হলে ওজন বৃদ্ধির প্রবণতা দেখা দেয় এবং জয়েন্টের ওপর চাপ পড়ে। তাই ডায়াবেটিক রোগীদের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা অত্যন্ত প্রয়োজন।

হু এর ২০১৫ সালের রিপোর্টে জানা যায়, ভারতের ৬৯.২ মিলিয়ন মানুষের মধ্যে ৮.৭% মানুষের ডায়াবেটিস রয়েছে। তাদের মধ্যে ৩৬ মিলিয়ন মানুষ কোনও চিকিৎসা করে না।

প্রতি বছর ১৪ই নভেম্বর মানুষের মধ্যে ডায়াবেটিস সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালিত হয়।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Special price discount for a limited time. || সীমিত সময়ের জন্য বিশেষ মূল্য ছাড়।

এখানে সব ধরনের হারবাল ঔষধ পাওয়া যায় । সীমিত সময়ের জন্য বিশেষ মূল্য ছাড়। Dismiss